ভোট সংঘর্ষে মুর্শিদাবাদেই আহত প্রায় দু’শো, জেলা হাসপাতালে বাড়ানো হল শয্যার সংখ্যা

 

 

পঞ্চায়েত নির্বাচন ঘিরে শনিবার সকাল থেকেই গন্ডগোল রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায়। মুর্শিদাবাদের একাধিক জায়গায় ঘটেছে সংঘর্ষের ঘটনা। হয়েছে মৃত্যুও। সেই আবহে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজে বাড়ানো হল শয্যার সংখ্যা। এমনটাই জানা গিয়েছে হাসপাতাল সূত্রে। বিষয়টি মেনে নিয়েছেন জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকও।

ভোটের দিনের সংঘর্ষে শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ১৩ জনের। ভোট সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনা ঘটেছে মুর্শিদাবাদেও। শুধু ওই জেলাতেই মারা গিয়েছেন চার জন। আবার শুক্রবার রাত থেকে শনিবার ভোটের দিন দুপুর পর্যন্ত ধরলে ওই জেলায় পাঁচ জন খুন হয়েছেন। যা রাজ্যের মধ্যে সর্বাধিক। একই সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় আহতও হয়েছেন অনেকে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কেবলমাত্র মুর্শিদাবাদ জেলাতেই নির্বাচনী সংঘর্ষে জখম হয়েছেন প্রায় ২০০ জন। তাঁদের কারও জখম বোমার আঘাতে। কেউ বা গুলিবিদ্ধ। কেউ আবার ইট-পাথর, লাঠি অথবা ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত হয়েছেন।

ভাইজান নেই! নওশাদহীন ভাঙড়ে ভোটের দিন খানিক ঝিমিয়েই রইল আইএসএফ
এই পরিস্থিতিতে অনেক আহতকেই জেলার বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে স্থানান্তরিত করানো হচ্ছে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজে। ফলে চাপ বাড়ছে জেলা হাসপাতালে। এই পরিস্থিতিতে হাসপাতালের শয্যার সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ। হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, এই পরিস্থিতিতে বাড়তি গদি কিনে শয্যা বাড়ানো হয়েছে। মুর্শিদাবাদ জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক সন্দীপ সান্যাল বলেন, ‘‘শুধুমাত্র মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজই নয়, বিভিন্ন জায়গায় আহতের সংখ্যা বেড়ে গিয়েছে। তাই কিছু কিছু জায়গায় শয্যার সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে।’’
(সৌজন্যে: আনন্দবাজার অনলাইন)

সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় গল্প

সর্বশেষ ভিডিও