‘ঘরে ঘরে গিয়ে সাহায্য চেয়েছিল দাদা’, দলিত যুবককে হত্যার রোমহর্ষক বর্ণনা দিল বোন

 

সারা দেশ জুড়ে আজ পালিত হচ্ছে রাখি উৎসব। সেই রাখী পূর্ণিমার দিনেই দাদাকে রাখী পরানো হল না এক হতভাগ্য বোনের। কান্নায় ভেঙে পড়লেন মধ্যপ্রদেশের দলিত যুবকের বোন। গত বৃহস্পতিবার মধ্য প্রদেশে নৃশংস ভাবে খুন হতে হয়েছিল দলিত যুবককে। মধ্যপ্রদেশের সাগর জেলায় ১৮ বছরের দলিত যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। শুধু তাই নয়, হামলার শিকার হতে হয়েছিল তার বোনকেও। ২০১৯ সাল থেকে বোনের উপর যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলে নেওয়ার চাপ দিয়ে আসছিল অভিযুক্তরা। তবে, কিশোরীর পরিবার কিছুতেই অভিযোগ প্রত্যাহার করতে রাজি হয়নি। তার পরিণতি হিসেবে নৃশংস ভাবে হত্যা করা হয় নির্যাতিতার দাদাকে।
এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তিন জনের বিরুদ্ধে তপশিলি জাতি উপজাতির আইনের ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। নির্যাতিতা কিশোরী জানিয়েছেন, হামলাকারীরা তাঁকেও নগ্ন করে মারধর করে। এরপরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে একটি টাওয়েল দিয়ে কিশোরীর সম্ভ্রম রক্ষা করে দাদা।
শুধু তাই নয়, নির্যাতিতার বাড়িতেও ভাঙচুর চালানো হয়েছিল। এমনকী পাকা ছাদেও ভাঙচুর চালানো হয়। এরপর নির্যাতিতার আরও দুই ভাইয়ের সন্ধান করতে শুরু করেছিল অভিযুক্তরা। এমনকি নির্যাতিতার আত্মীয়দের বাড়ির লোকেদেরও আক্রমণ করা হয়েছে। ২০১৯ সালে এই ঘটনার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল। যদিও দলিতদের উপরে হামলা চালানোর ঘটনা এই প্রথম নয়, এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছে। এর আগেও একাধিক জায়গায় দলিত যুবকদের উপরে হামলা চালানোর ঘটনা ঘটেছে। একাধিকবার আক্রান্ত হয়েছে দলিতরা।
সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া

সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় গল্প

সর্বশেষ ভিডিও