মহিলারা প্রতি মাসে পাবেন ২৫০০ টাকা এবং গ্যাস সিলিন্ডার মাত্র ৫০০ টাকায়, তেলেঙ্গানা নির্বাচনের আগে কংগ্রেসের ৬ বড় প্রতিশ্রুতি

আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের আগে, কংগ্রেস একাধিক জনমোহিনী প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেমন “লক্ষ্মীর ভান্ডার” প্রকল্পের ঘোষণা করেছিলেন, তেমনই কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি হায়দরাবাদে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকের পরে একটি জনসভায় মহিলাদের জন্য “মহালক্ষ্মী প্রকল্প” ও একাধিক বড় নির্বাচনী ঘোষণা করেছেন। ওই জনসভায় ভাষণ দিতে গিয়ে সোনিয়া গান্ধী বলেন, আমরা এই মহান তেলেঙ্গানা রাজ্য তৈরি করেছি এবং এখন আমাদের এটিকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে হবে। তিনি বলেন, আমার স্বপ্ন হল তেলেঙ্গানায় কংগ্রেস পার্টির সরকার হোক এবং তা এখানে সমাজের সকল শ্রেণীর জন্য কাজ করুক।
এই জনসভায় ঘোষণা করার সময়, সোনিয়া গান্ধী বলেছিলেন যে আমাদের সরকার রাজ্যের মহিলাদের এগিয়ে নিতে কাজ করবে। আজ তিনি এই প্ল্যাটফর্ম থেকে ঘোষণা করেছেন যে, সরকার গঠিত হলে, এখানকার প্রতিটি মহিলাকে মহালক্ষ্মী প্রকল্পের অধীনে ২৫০০ টাকা আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে। একইসঙ্গে, গ্যাস সিলিন্ডার মাত্র ৫০০ টাকায় দেওয়া হবে এবং রাজ্যের সরকারি বাসে মহিলাদের ভ্রমণ বিনামূল্যে করা হবে।
শুধু তাই নয়, সোনিয়া বলেন, তেলেঙ্গানার জনগণের আশা-আকাঙ্খা পূরণ করতে আমরা ৬টি গ্যারান্টি ঘোষণা করছি এবং আমরা সমস্ত গ্যারান্টি পূরণ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
নির্বাচনের আগে কংগ্রেস কী কী ঘোষণা করেছে তা জেনে নিন একনজরেঃ
১) মহিলাদের জন্য প্রতি মাসে ২৫০০ টাকা মহালক্ষ্মী গ্যারান্টি আর্থিক সহায়তা, ৫০০ টাকায় এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডার, আরটিসি বাসে বিনামূল্যে ভ্রমণ
২) ঋতু ভরোসা গ্যারান্টি – কৃষকদের আর্থিক সহায়তা বার্ষিক ১৫,০০০ টাকা, কৃষি শ্রমিকদের ১২,০০০ টাকা সহায়তা, ধান ফসলে ৫০০ টাকা বোনাস
৩) গৃহ জ্যোতি গ্যারান্টি – ২০০ ইউনিট বিনামূল্যে বিদ্যুত সমস্ত পরিবারকে
৪) ইন্দিরাম্মা ইন্দু গ্যারান্টি- যাদের নিজস্ব বাড়ি নেই তাদের ৫লক্ষ টাকা দেওয়া হবে , তেলেঙ্গানা আন্দোলনের যোদ্ধারা ২৫০ বর্গ গজের প্লট পাবেন
৫) যুব বিকাশম – ছাত্রদের ৫ লক্ষ টাকার বিদ্যা ভরোসা কার্ড দেওয়া হবে, প্রতিটি মন্ডলে একটি তেলেঙ্গানা ইন্টারন্যাশনাল স্কুল থাকবে
৬ ) চেয়ুথা – ৪ হাজার টাকা মাসিক পেনশন – রাজীব আরোগ্যশ্রীর আওতায় ১০ লক্ষ টাকার বীমা পাওয়া যাবে।
একই জনসভায় কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী বলেন, তেলেঙ্গানায় কংগ্রেস পার্টি কেবল বিআরএস পার্টির বিরুদ্ধে লড়াই করছে না কংগ্রেস বিআরএস, বিজেপি, এআইএমআইএম-এর বিরুদ্ধেও লড়াই করছে। তারা নিজেদের আলাদা দল বললেও তারা সবাই একসঙ্গে কাজ করছে। যখনই বিজেপির বিআরএসের প্রয়োজন হয়েছে, তখনই এই দলের সমর্থকরা সম্পূর্ণ সমর্থন করেছে।

সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় গল্প

সর্বশেষ ভিডিও