বিগত তিন প্রজন্ম ধরে দশেরার ঐতিহ্যকে বাঁচিয়ে রাখছে উত্তরপ্রদেশের মুসলিম পরিবার

 

উত্তরপ্রদেশের একটি মুসলিম পরিবার গত তিন প্রজন্ম ধরে সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্যের সৌন্দর্য প্রদর্শন করে দশেরার মূর্তি তৈরি করছে। উত্তরপ্রদেশের হাপুর জেলার মাসুম আলি দশেরার জন্য রাবণ, মেঘনাদ এবং কুম্ভকর্ণের ৭০ ফুটের মূর্তি তৈরি করেছেন।
এনডিটিভিকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “আমাদের পরিবার ১০০ বছর ধরে এটা করে আসছে। আমার দাদা এটা করেছেন, আমার বাবা এটা করেছেন। আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মও এটা করবে”।
পারিবারিক উত্তরাধিকারকে এগিয়ে নিয়ে চলা মাসুম আলী বলেন, দশেরা তাঁদের জন্য শুধু একটি উৎসবই নয়, জীবিকার উৎসও।
তাদের মূর্তিগুলি হাপুরের পিলখুয়ায় বার্ষিক রামলীলা অনুষ্ঠানের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ, যেখানে দশেরার সন্ধ্যায় রাবণ, মেঘনাদ এবং কুম্ভকরণের কুশপুত্তলিকা পোড়ানো হয় এবং মন্দের উপর ভালোর বিজয় চিহ্নিত করে।

মাসুমের শ্যালক, যিনি তাঁর সাথে কাজ করেন, তিনি বলেন, তারা প্রতি বছর দশেরার জন্য অপেক্ষা করেন, যেভাবে তারা ঈদের জন্য অপেক্ষা করেন। মাসুম বলেন, কাঁচামালের দাম ক্রমাগত বৃদ্ধির কারণে কয়েক বছর ধরে মুদ্রাস্ফীতি তাদের ব্যবসাকে প্রভাবিত করেছে। প্রতি কয়েক বছরে, রাবণের আকার ১০ ফুট কমে গিয়েছে বলেও জানান তিনি।

সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় গল্প

সর্বশেষ ভিডিও