তিন রাজ্যে জয়ের পর ঘুরিয়ে জাতি ভিত্তিক জনগণনাকে আক্রমণ নরেন্দ্র মোদীর

 

চার রাজ্যে ফল ঘোষণার দিনই ‘ইন্ডিয়া’ জোটের ৬ ডিসেম্বর বৈঠক ডেকেছেন কংগ্রেস সভাপতি।
কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী এক্সে লিখেছেন, ‘‘মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড় এবং রাজস্থানের জনাদেশ আমরা গ্রহণ করছি। বিচারধারার লড়াই জারি থাকবে।’’
তিনি লিখেছেন, ‘‘ প্রজালু তেলেঙ্গানা বা মানুষের তেলেঙ্গানা গঠনের প্রতিশ্রুতি আমরা অবশ্যই পূরণ করব।’’
তিন রাজ্যে জয়ের পরে নরেন্দ্র মোদী বিজেপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এসে ভাষণ দেন। তিনি বলেন, ‘‘ভাগাভাগির রাজনীতির মোকাবিলা করতে হবে। জবাবও দিতে হবে। একইসঙ্গে নিজেদের প্রতি জনগণের বিশ্বাসও অটুট রাখতে হবে।’’

মোদীর এই বক্তব্যের প্রেক্ষিতে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, ঘুরিয়ে জাতিভিত্তিক জনগণনার দাবিকেই বিঁধেছেন মোদী। কংগ্রেস, সিপিআই(এম) সহ বিরোধীরা সারা দেশে জাতি ভিত্তিক জনগণনার দাবি তুলতে শুরু করেছেন। বিরোধীদের বক্তব্য, এই সমীক্ষা ছাড়া দেশের সমস্ত অংশের মানুষের আর্থ-সামাজিক অবস্থান সঠিক ভাবে বোঝা সম্ভব নয়। জাতি ভিত্তিক জনগণনা হলে বিজেপির ‘হিন্দু কনসোলিডেশন’ ভেঙে যেতে পারে। কিন্তু সরাসরি সেই দাবি অগ্রাহ্য করা বিজেপির পক্ষে সম্ভব নয়। তাই ঘুরিয়ে বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন মোদী।

সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় গল্প

সর্বশেষ ভিডিও