দেশে ৪৫ শতাংশ বেড়েছে ঘৃণা ভাষণ

 

 

সদ্য প্রকাশিত ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরো (এনসিআরবি)’র রিপোর্ট বলছে, দেশে ঘৃণাভাষণের নথিবদ্ধ ঘটনা বেড়েছে ৪৫ শতাংশ। সোমবার প্রকাশিত ২০২২সালের ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরো (এনসিআরবি)’র রিপোর্টে স্পষ্ট হয়েছে, ভারতীয় দণ্ড বিধি ১৫৩এ ধারায় আওতায় ধর্ম, জাতপাত, ভাষা ও জন্মস্থানের ভিত্তিতে বিভিন্ন গোষ্ঠীগুলির মধ্যে বৈরিতাকে উসকে দিতে ঘৃণা ভাষণ ও অন্যান্য কার্যকলাপের ঘটনা এই সময়কালে ৪৫শতাংশ বেড়েছে। রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০২১ সালে এমন অপরাধের লিপিবদ্ধ সংখ্যা ছিল ৯৯৭। ২০২২’এই তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১,৪৪৪। অর্থাৎ ৪৫শতাংশ বৃদ্ধি। সবচেয়ে বেশি এমন ঘটনা বেড়েছে উত্তর প্রদেশে (২১৭টি)। তারপরই রয়েছে বিজেপি’র সদ্য জিতে নেওয়া রাজস্থান (১৯১)। পরে দলবদলে ক্ষমতায় আসা বিজেপি শাসিত মহারাষ্ট্র (১৭৮)। এই ধরনের অপরাধের হারের নিরিখে উত্তর-পূর্বের ভারতে মণিপুর, সিকিম ও অরুণাচলে ঘৃণা ভাষাণ সবচেয়ে বেশি ঘটেছে। লক্ষণীয়ভাবে দক্ষিণ ভারতে এই দু’বছরে সবচেয়ে বেশি এমন অপরাধের ঘটনা ঘটেছে তেলেঙ্গানা। জাতি-সংঘর্ষ বিধ্বস্ত মণিপুরে এই সময়কালে এই অপরাধ সবচেয়ে বেশি- প্রতি লক্ষ জনসংখ্যা পিছু ০.৫। আর তেলেঙ্গানায় এই হিসেব ০.৩।
এনসিআরবি রিপোর্ট অনুযায়ী, সদস্য যে পাঁচ রাজ্যে ভোট হয়ে গেল তার মধ্যে দুটি রাজ্যে এমন ঘটনা আগের বছরের তুলনায় ১০০শতাংশেরও বেশি। সেই নিরিখেই দেখা যাচ্ছে, মধ্য প্রদেশে ২০২১ সালে ৩৭টি থেকে বেড়ে ২০২২’এ সে রাজ্যে এমন ঘটনার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০৮টি। মানে ১৯১শতাংশ বৃদ্ধি। তেমনই রাজস্থানে এই বৃদ্ধি ১৩৮শতাংশ। ২০২২’এ ১৯১টি মামলা। ২০২১ সালে তা ছিল ৮০টি।
তবে তেলেঙ্গানায় এই বৃদ্ধি অনেকটা কম, ৩১শতাংশ। সেখানে ২০২১ ছিল ৯১। আর ২০২২’এ বেড়ে হয়েছে ১১৯। ছত্তিশগড়ে আবার সাত থেকে কমে ৫টি হয়েছে। গত দুই বছরে মিজোরামে আবার এমন ঘৃণাভাষণের কোনও মামলা নথিভুক্ত হয়নি। অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে তামিলনাডুতে ১৪৬টি মামলা, অন্ধ্র (১০৯), কর্নাটক (৬৪), আসাম (৪৪), পশ্চিমবঙ্গ (৪৩), পাঞ্জাব (৩০), হরিয়ানা (২৯), দিল্লি (২৬), জম্মু-কাশ্মীর (১৬), উত্তরাখণ্ড ও মণিপুর উভয় রাজ্যেই ১৫টি করে এবং হিমাচল প্রদেশে (১০টি)। সামগ্রিকভাবে রাজ্যের নিরিখে এমন ঘটনা বেড়ে ৪৫শতাংশ।

সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় গল্প

সর্বশেষ ভিডিও